Tuna melted sandwich

Sumaiya Haider Rahaman Rinis tuna melted sandwich
ingredients:tuna 1 can,mayonnaise 2/3 tab, chopped oninon,chopped green chilli,chopped persli,mozzarela chese,black paper, bread 5/6 slice,salt.
recipe:tuna mach r shathe mozzarela chese chara shob ingredients valo vabe mix kore nin. tarpor mixure ti bread r upor valo vabe choriye & er upor valo vabe mozzarela chese valo vabe choriye din.microwave oven e 10/15 min grill kore nin.uporer chese jokhon light brown coloure hobe tokhon namiye serve korun:)

kachki macher bhorta

Nahar Khairun’s kachki macher bhorta

kachki mach 1/2 kg( washed and drained)
green chilli 2/4 chopped
onion chopped 1
garlic 3/4 chopped
coriander leaves 1tbs
turmeric powder 1/2 tbs
oil 5 tbs
salt to tast

fry the onion n garlic ..add salt,turmeric powder n kachki…stir well…..fry them 10 mins…now add with coriander and mix them well…

Salmon steak

Ruksana Siddiqui’s Salmon steak

Marinate the salmon fillet with soy sauce. { If you want you can add orange/lime/ lemon juice }
Then putit in the freezer for 30 minutes.
Add lemon zest, minced garlic, EVOO, testing salt.
Sprinkle crushed black pepper over it.
Preheat the oven – 350 F
Next broil the salmon for 15/20 minutes.
Spread small amount of butter on top of the hot cooked salmon.
It is best to eat as soon as possible..

ENJOY!!!

শুঁটকি ভর্তা

উপকরণ : শুঁটকি ২৫০ গ্রাম, কলি পেঁয়াজ আধা কাপ, লাল মরিচ ১০টা, রসুন কোয়া ২ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ৩ টেবিল চামচ।

প্রণালী : প্রথমে শুঁটকিটাকে ছোট ছোট করে কাটুন। এবার ১০-১২ বার কুসুম গরম পানি দিয়ে শুঁটকিগুলো ধুয়ে নিন। তারপর চুলায় তেল দিয়ে রসুন দিন। রসুন লাল হয়ে গেলে তুলে রাখুন। শুঁটকি বাদে এক এক করে বাকি সব উপকরণ দিয়ে ভেজে নিন। ভাজা হলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। শুঁটকিসহ সব উপকরণ পাটায় বাটুন। তৈরি হয়ে গেল শুঁটকি ভর্তা।

ইলিশ মাছের কাচ্চি বিরিয়ানি

উপকরণ : বাসমতি চাল আধা কেজি, ইলিশ মাছ ১ কেজি, পানি ঝরানো টক দই ১ কাপ, দুধ (তরল) ১ কাপ, আদা বাটা ২ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, শাহি জিরা ১ চা চামচ, আস্ত এলাচ ৪টি, দারচিনি ২ সেমি ৩ টুকরা, তেজপাতা ২টি, লবঙ্গ ৩টি, লবণ স্বাদমতো, তেল/ঘি ১ কাপ, পানি ৬ কাপ, কাঁচা মরিচ ৪/৫টি, আলু বোখারা ৪টি, পেস্তা বাদাম, কাঠবাদাম, কাজুবাদাম কুচি ২ টেবিল চামচ, কিশমিশ ১ টেবিল চামচ, চিনি ১ চা চামচ, মাওয়া আধা কাপ (গ্রেট করা), পোস্ত বাটা ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন
১. চাল ধুয়ে ৩০ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। তারপর পানি ঝরিয়ে নিন।
২. মাঝারি সাইজের টুকরা করে মাছ ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।
৩. বড় হাঁড়িতে ঘি/তেল দিয়ে পেঁয়াজ বেরেস্তা করে ১ টেবিল চামচমতো বেরেস্তা রেখে বাকিগুলো উঠিয়ে নিন। আধা কাপ তেলও উঠিয়ে নিন।
৪. ২ টেবিল চামচ পেঁয়াজ বেরেস্তা, টক দই, আদা বাটা, মরিচ গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, ভাজা তেল ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে মাছ ম্যারিনেড করুন ৩০ মিনিট।
৫. বড় হাঁড়িতে ৬ কাপ পানি দিয়ে শাহি জিরা ও সব আস্ত গরম মসলা এবং পরিমাণমতো লবণ দিন।
৬. ফুটে উঠলে চাল দিন। ঝরঝরে শক্ত ভাত রান্না করে মাড় ঝরিয়ে নিন। আধা কাপ মাড় রেখে দিন। ভাত ঠাণ্ডা করে নিন।
৭. সব বাদাম কুচি, কিশমিশ, মাওয়া, চিনি, পেঁয়াজ বেরেস্তা একসঙ্গে মেখে চার ভাগ করে নিন।
৮. বেরেস্তার পাতিলে প্রথমে মাছ, মসলাসহ বিছিয়ে এক ভাগ বেরেস্তার মিশ্রণ ছড়িয়ে দিন। এভাবে স্তরে স্তরে পোলাও ও বেরেস্তার মিশ্রণ সাজিয়ে দিন। সবার ওপরে বেরেস্তার মিশ্রণ থাকবে।
৯. ভাতের মাড়টুকু ওপর থেকে দিয়ে দিন। দুধের সঙ্গে পোস্ত বাটা মিশিয়ে ঢেলে দিন। সবশেষে তুলে রাখা ঘিটুকু ছড়িয়ে দিন।
১০. আটা গুলে পাতিলের ঢাকনা দিয়ে সিল করে দিন।
১১. চুলায় তাওয়া বসিয়ে মুখবন্ধ হাঁড়িটি এর ওপর বসান। চড়া আঁচে ১০ মিনিট রাখুন। আঁচ ঢিম করে আরো ৩০ মিনিট রাখুন।
১২. নামিয়ে ওপরে বেরেস্তা ও বাদাম কুচির মিশ্রণ ছড়িয়ে সালাদ সহযোগে পরিবেশন করুন।

ফিশ শাসলিক

উপকরণ
‘ক’ : কাঁটা ছাড়া মাছ ৫০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ, জিরা গুঁড়া আধা চা-চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা আধা চা-চামচ, লবণ আধা চা-চামচ, লেবুর রস এক টেবিল চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ, অয়েস্টার সস ১ চা-চামচ, চিলি সস ১ চা-চামচ, ফিশ সস ১ চা-চামচ, তেল ২ টেবিল চামচ, শাসলিক প্রয়োজনমত।
‘খ’ : আমড়া চারকোনা পাতলা স্লাইস আধা কাপ, পেঁয়াজ ভাজা খোলা আধা কাপ, কাঁচামরিচ আস্ত ৮-১০টি, গাজর স্লাইস আধা কাপ, সবুজ ক্যাপসিকাম ১টি, টমেটো ৩টি।

প্রণালী : কাঁটাছাড়া বড় মাছ আধা ইঞ্চি কিউব করে কেটে ধুয়ে ভালোমত পানি ঝরিয়ে ‘ক’ অংশের সব উপকরণ দিয়ে মাছ ম্যারিনেট করতে হবে ৪০-৫০ মিনিট। এবার ম্যারিনেট করা মাছের সঙ্গে ‘খ’ অংশের সব উপকরণ মেখে নিতে হবে। অতঃপর শাসলিক কাঠিতে পর্যায়ক্রমে সব গেঁথে নিতে হবে। ফ্রাইপ্যানে সামান্য তেল দিয়ে গরম হলে কাঠিগুলো বিছিয়ে দিতে হবে। মাঝে মাঝে উল্টে দিতে হবে এবং মাখানো সস ব্রাশ করে দিতে হবে। বাদামি রং করে ভেজে গরম গরম পরিবেশন করুন।

কৈ মাছের দোপেঁয়াজা

যা লাগবে : কৈ মাছ ৪টা, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল চামচ, আদা ও রসুন বাটা আধা চা চামচ করে, জিরা বাটা, হলুদ, ধনে গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া আদা চা চামচ করে। কাঁচামরিচ ফালি ৪টা, টমোটো কুচি আধা কাপ, তেল আধা কাপ, লবণ ও পানি পরিমাণ মতো।

যেভাবে করবেন : কড়াইতে তেল গরম হলে পেঁয়াজ কুচি ভেজে তাতে সব মশলা দিয়ে দিন। একটু নেড়ে সামান্য পানি দিয়ে মশলা কষান। এবার ধুয়ে রাখা মাছ ও টমেটো কুচি দিয়ে দিন। একটু কষিয়ে ১ কাপ পানি দিয়ে রান্না করুন। পানি শুকিয়ে তেল উপরে উঠে এলে কাঁচামরিচ দিয়ে নামিয়ে নিন।

ইলিশ-ডাঁটার ঝোল

যা লাগবে : ছোট ইলিশের টুকরা ৮টি, কাটা-বাছা ডাঁটা ২ কাপ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা, রসুন ও জিরা বাটা আধা চা চামচ করে, হলুদ, মরিচ ও ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ করে, তেল আধা কাপ, লবণ ও পানি পরিমাণ মতো, কাঁচামরিচ ৩-৪টা।

যেভাবে করবেন : মাছ ও ডাঁটা ধুয়ে রাখুন। কড়াইয়ে তেল গরম হলে পেঁয়াজ কুচি ভেজে তাতে সব মশলা দিয়ে কষান। সামান্য পানি দিয়ে তাতে মাছ দিয়ে কষিয়ে মাছ তুলে রাখুন। এবার ওই মশলায় ডাঁটা দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে ২ কাপ পানি দিন। ডাঁটা সিদ্ধ হলে মাছগুলো ওপরে বিছিয়ে দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করুন। ঝোল কমে গেলে নামিয়ে নিন।

সর্ষে বাটায় চাপিলা

যা লাগবে : চাপিলা মাছ ২৫০ গ্রাম, সরিষা বাটা ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল চামচ, ধনে, জিরা, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ করে, সরিষার তেল আধা কাপ, কাঁচামরিচ ফালি ৫টি, লবণ ও পানি পরিমাণ মতো।

যেভাবে করবেন : মাছ কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। কড়াইয়ে পেঁয়াজ কুচির সঙ্গে কাঁচামরিচ বাদে সব মশলা হাতে মেখে নিন। এবার মাছ দিয়ে আলতোভাবে মেখে ১ কাপ পানি দিয়ে মাঝারি আঁচে রান্না করুন। পানি শুকিয়ে তেল উপরে উঠলে কাঁচামরিচ দিয়ে ২/১ মিনিট রান্না করে নামিয়ে নিন।

ছোট মাছের চচ্চরি

যা লাগবে : যে কোন ছোট মাছ ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, কাঁচামরিচ ফালি ৮টা, মরিচ, হলুদ, ধনে গুঁড়া আধা চামচ করে, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, তেল আধা কাপ, লবণ ও পানি পরিমাণ মতো।

যে ভাবে করবেন : মাছ কেটে ধুয়ে নিন। এবার হাঁড়িতে সব মশলা মেখে তাতে মাছ দিয়ে হালকাভাবে মাখুন। পরিমাণ মতো পানি দিয়ে চুলায় বসান। পানি শুকিয়ে মাখা মাখা হলে নামিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

ইলশে পেঁয়াজ ভাজা

উপকরণ
ইলিশ মাছ ৮ টুকরা, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, শুকনো মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ৩টি, লবণ স্বাদমতো, সয়াবিন তেল ৩ টেবিল চামচ।

প্রণালি
মাছ ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে হলুদ, মরিচ, লবণ মাখিয়ে ১০ মিনিট রাখুন। উনুনে কড়াই বসান। তেল গরম হলে মাছ ছেড়ে দিন। কড়া করে ভাজুন। মাছ একটি পাত্রে রাখুন। তেলে পেঁয়াজ কুচি ছেড়ে দিন। হালকা ভেজে মাছের ওপর ছড়িয়ে দিন। কাঁচামরিচ দিয়ে পরিবেশন করুন।

গাচপাচিয়ো প্রণ লেমন

উপকরণ
চিংড়ি ৮০ গ্রাম, লেবুর রস ২ টেবিল চামচ, লাল টমেটো ৫০ গ্রাম, লাল ক্যাপসিয়াম ১টা, পেঁয়াজ ১টি, রসুন ৩টি, টমেটো জুস ১ কাপ, গোলমরিচ ১ চা চামচ, কালোজিরা ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, শশা ১টি, অলিভওয়েল ৪ টেবিল চামচ, লাল মরিচ ২টি।

প্রণালি
টমেটো এবং ক্যাপসিয়াম ১ ইঞ্চি আকারে টুকরা করুন। সবজি এবং মসলা আলাদা আলাদা অল্প বেস্নন্ড করুন। একটি পাত্রে চিংড়ি মাছ ছাড়া বেস্নন্ড করা সব উপকরণ একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে ২ ঘণ্টা ফ্রিজে রাখুন। চিংড়ির খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে ধুয়ে ২ কাপ পানিতে লেবুর রস ও লবণ দিয়ে সিদ্ধ করুন। উনুন থেকে নামিয়ে ঠা-া করে স্যুপের বাটি অথবা গ্লাসে ঢালুন। ফ্রিজ থেকে মিশ্রণটি বের করে সিদ্ধ মাছের সঙ্গে মিশিয়ে পরিবেশন করুন।

Bhapa Ilish

Bhapa Ilish

Recipe By : Palak Biswas

mach gulo ke bhalo kore dhuye halka nun-holud makhiye rakhun. Sorsher jonno ekhon 2 to option ache. either you use mastard paste that’s readily available in market or sada shorshe mixi te bete nin. microwave er patre sorshe mix ta dhele din, noon deben andaj moto. tar opor mach gulo boshiye din.. using a flat bed dish will be better.. shorsher tel choriye din opore.. r 3/4 te kacha lonka chire din.. cover that will the lid or silver foil.. let it cook for 5 minutes in 270 degree in convection mode.. after 5 mins, mach gulo sabdhane ulte din, cover again and cook for another 7 minutes.. let it settle for a few minutes and your Bhapa Ilish is ready…

mix ta bananor somoe kheyal rakhben jeno khub beshi thick na hoe.. tahole moisture ekdom chole jabe r taste ta jombe na..

মাছের ডিমের পুঁই খিলি

উপকরণ: মাছের ডিম (যেকোনো) ১ কাপ, হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ, সরিষা বাটা আধা চা-চামচ, লেবুর রস ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, পুঁইপাতা ১০-১২টি, টুথপিক ১০-১২টি, ময়দা ১ কাপ ও তেল ভাজার জন্য।

প্রণালি: ডিম (মাছের) পরিষ্কার করে ধুয়ে তাতে হলুদ, মরিচ, সরিষা বাটা, লবণ ও লেবুর রস মাখিয়ে নিন। একেকটি পুঁইপাতা পানের খিলির মতো করে তাতে মাছের ডিম ভরে দিন এবং টুথপিক দিয়ে পাতার মুখ বন্ধ করে ময়দা, পানি ও লবণ দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে তাতে খিলিগুলো ডুবিয়ে ডুবো তেলে বাদামি করে ভেজে তুলুন। পরিবেশনের সময় টুথপিকগুলো খুলে চায়ের সঙ্গেও পরিবেশন করা যায়।

ছোট মাছের পাতলা ঝোল

উপকরণ: বাতাসি বা কাজলি মাছ ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, পেঁয়াজ বাটা এক টেবিল চামচ, রসুন বাটা এক চা-চামচ, হলুদ গুঁড়ো আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়ো আধা চা-চামচ, কাঁচা মরিচ তিন-চারটি, ধনেপাতা দুই টেবিল চামচ, ভাজা জিরার গুঁড়ো আধা চা-চামচ, টমেটো কুচি একটি, তেল পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো।

প্রণালী: মাছে লবণ, হলুদ গুঁড়ো ও মরিচ গুঁড়ো মেখে ১০ মিনিট রেখে দিতে হবে। ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে তাতে কাটা পেঁয়াজ দিন। পেঁয়াজ একটু ভাজা ভাজা হলে সব মসলা, লবণ ও সামান্য পানি দিয়ে কষুন। মসলা কষা হলে তাতে বড় এক কাপ পানি দিন। অন্য একটি ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে মাছ একটু লাল করে ভাজুন। এবার ভাজা মাছগুলো ফুটন্ত ঝোলের মধ্যে দিন। টমেটো ও ধনেপাতা দিন, কাঁচা মরিচ দিয়ে একটু ঝোল রেখে নামিয়ে ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।